সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি নিয়ম 2022-23

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগে

আপনি কি একজন এসএসসি পড়ুয়া? ভাবছেন ডিপ্লোমা ইন ইন্জিনিয়ার হবেন? সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগে? এসব প্রশ্ন নিয়ে বিস্তারিত।

Table of Contents

সম্প্রতি ১২/০৫/২৪ তারিখে এসএসসি ও সমমানের পরিক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে । যারা উক্ত পরিক্ষায় ভালো ফলাফল করেছে তারা এখন চিন্তা করছে কোথায় ভর্তি হব জেনারেলে না টেকনিক্যালে আমি যে পয়েন্ট পেয়েছি তাতে কী আমি ভালো কোন কলেজে বা টেকনিক্যালে চান্স পাব? এ প্রশ্ন গুলো তাদের মনে ঘুরপাক খাচ্ছে । আর যারা টেকনিক্যালে ভর্তি হতে আগ্রহী আজকের এই উপস্থাপনটি তাদের জন্য । আপনারা যদি টেকনিক্যালে ভর্তি হতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে আমাদের এই উপস্থাপনটি একবার দেখে আসতে পারেন ।bteb admission date 2022-23

পলিটেকনিক বা ডিপ্লোমাতে ভর্তির যোগ্যতা :

পলিটেকনিকে দুই ভাবে ভর্তি হওয়া যায় । এক সরকারি দুই বেসরকারী এর মধ্যে সরকারিতে ১০ টি কোর্স ও বেসরকারীতে ৫ টি কোর্স । এখানে ১০ টি কোর্সর মধ্যে ৫টি কোর্স রয়েছে এবং এ কোর্সের মেয়াদ ২ বৎসর ও ৪ বৎসর রয়েছে । তাই ভর্তির ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতার ও তারতম্য রয়েছে ।এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় বিজ্ঞান, হিসাব বিজ্ঞান ও মানবিক শাখা থেকে উত্তীর্ণ হতে হবে। এছারা কারিগরি (ভোকেশনাল) থেকে উত্তীর্ণদের জন্য রয়েছে বিশেষ সুযোগ।How to Apply HSC admission online 2024

সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগে?পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগে

সরকারি পলিটেকনিকে ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী   আপনাকে এসএসসি বা দাখিল পরীক্ষায় যে কোনো বিভাগ থেকে কমপক্ষে ৩.৫০(ছেলে) ও ৩.০০ (মেয়ে) পেতে হবে। গণিতে জিপিএ ৩ পেতে হবে। বেসরকারিতে কমপক্ষে ২.০০ পেতে হবে। সরকারি পলিটেকনিকে ৪ বছরে আপনার পড়াশোনার খরচ পড়বে মাত্র ৫০ হাজার টাকা ।

বিজ্ঞান বিভাগ ভর্তির নীতিমালা :

এসএসসি এর সম্মান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ (ছেলে) ও ৩.০০ (মেয়ে) পয়েন্ট পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। সে ক্ষেত্রে সরাসরি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ভর্তির আবেদন করতে পারবে।উচ্চতর গনিত থাকতে হবে।

মানবিক শাখা ভর্তির নীতিমালা :

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মানবিক শাখা থেকে সরাসরি সরকারি পলিটেকনিকে ভর্তির আবেদন করা যাবে । তবে অবশ্যই ছাত্র ও ছাত্রীর জিপিএ ভালো হলে চান্স হওয়ার সুযোগ থাকছে। সর্বনিম্ন জিপিএ ৪.০০ হলে সুযোগ রয়েছে চান্স পাওয়ার।

বাণিজ্যিক শাখা ভর্তির নীতিমালা :

এস এস সি ও সমমান পরীক্ষায় বাণিজ্যিক শাখা থেকে সরাসরি সরকারি পলিটেকনিকে ভর্তির আবেদন করা যাবে । পূর্বের মানবিক শাখার মতো এ নীতিমালা অনুযায়ী কার্যক্রম সম্পুর্ন হবে।

কারিগরি (ভোকেশনাল) ভর্তির নীতিমালা :

কারিগরি থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে বিশেষ সুযোগ। সে ক্ষেত্রে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫ (ছেলে) ও ৩.০০ মেয়ে হলে সরাসরি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ভর্তির আবেদন করতে পারবে। কারিগরি থেকে উত্তীর্ণ হওয়া শিক্ষার্থীরা প্রথমে সুযোগ পাবে।তাদের জন্য রয়েছে ১৫% কোটা বরাদ্দ। 

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তির আবেদন শুরুর তারিখ?পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি ২০২২-২৩

2024–25 থেকে শিক্ষাবর্ষের পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট  ভর্তি আবেদন শুরু তারিখ এখানে দেওয়া হবে ।

জিপিএ ৪.৯০-৫.০০ হলে কোন পলিটেকনিক ও কোন বিষয়ে চান্স পেতে পারেন?

এই পয়েন্টে আপনি যেকোন পলিটেকনিক এ যেকোনো বিষয়ে চান্স পাওয়ার সুযোগ বেশি। সেক্ষেত্রে আপনাকে দ্রুত আবেদন করতে হবে।

জিপিএ ৪.৭০-৪.৯০ হলে কোন পলিটেকনিক ও কোন বিষয়ে চান্স পেতে পারেন?

ঢাকা, রাজশাহী, রংপুর, বরিশাল, বগুড়া, চট্টগ্রাম এ ভালো বিষয়ে চান্স পাওয়ার সুযোগ রয়েছে।

জিপিএ ৪.৫০-৪.৭৫ হলে কোন পলিটেকনিক ও কোন বিষয়ে চান্স পেতে পারেন?

বগুড়া, রংপুর, রাজশাহী, বরিশাল পলিটেকনিক এ কম্পিউটার, ইলেক্ট্রনিক্স সুযোগ পেতে পারেন।

জিপিএ ৪.২০-৪.৪৫ হলে কোন পলিটেকনিক ও কোন বিষয়ে চান্স পেতে পারেন?

ইলেকট্রনিক্স, ফুড,আরএসি,কম্পিউটার চান্স পেতে পারেন। এক্ষেত্রে টপ পলিটেকনিক এ চান্স পাওয়ার সুযোগ কম থাকে।

উপরের বিষয়টি একেবারেই ধারনা যোগ্য। হতেও পারে না হতেও পারে। সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার মত করে আবেদন করতে পারেন। আপনার যেই বিষয় নিয়ে পড়তে আগ্রহ সেই বিষয়টি শুধু আবেদন করুন।

রিমেডিয়াল কোর্স কি?

রেমেডিয়াল কোর্স হলো যারা বিজ্ঞান ও গাণিতিক বিষয়ে পারদর্শী করার একটি কোর্স। যারা এস এস সি ও সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ হন নাই তাদের এই কোর্স বিজ্ঞান ও গাণিতিক বিষয়ে পারদর্শী করবে। এই কোর্সটি সম্পূর্ণ করেই মানবিক ও বাণিজ্যিক বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি আবেদন করতে পারবে।পলিটেকনিক Remedial Course কী? কিভাবে অনলাইনে আবেদন করবেন?

সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট কয়টি?

বাংলাদেশের সর্বমোট ৪৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট রয়েছে।

কয়টি বিষয়ে আবেদন করা যাবে?

একজন শিক্ষার্থী যেকোনো পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি র জন্য মোট – ১৫টি বিষয়ে চয়েজ দিতে পারবে।

দেশের সেরা ১০টি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট :

১ম স্থানে আছেঃ ঢাকা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ।
২য় স্থানে আছেঃ রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ।
৩য় স্থানে আছেঃ বগুরা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ।
৪র্থ স্থানে আছেঃ টাঙ্গাইল পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ।
৫ম স্থানে আছেঃ কুমিল্লা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ।
৬ম স্থানে আছেঃ চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ।
৭ম স্থানে আছেঃ বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ।
৮ম স্থানে আছেঃ রংপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ।
৯ম স্থানে আছেঃ পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ।
১০ম স্থানে আছেঃ বাংলাদেশ সুইডেন পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

যারা দেশের এই সেরা ১০টি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট  ভর্তি হতে আগ্রহী তাদের অবশ্যই ভালো মানের ফলাফলের প্রয়োজন হবে।তবে ভালো বিষয় পেতে হলে ভালো ফলাফলের বিকল্প নেই।

দেশের সেরা ৫টি ডিপার্টমেন্ট

  •  সিভিল
  • ইলেকট্রিক্যাল (ইলেকট্রনিক্স )
  • মেকানিক্যাল
  • পাওয়ার ও
  • টেক্সটাইল

যারা দেশের এই সেরা ৫টি ডিপার্টমেন্টে এবং দেশের সেরা ১০টি পলিটেকনিকের একটিতে পরাশোনা করতে চান তাদেরকে এসএসসি বা সমমানের পরিক্ষায় A+ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে । তা আপনি হয়তো চান্স পেয়ে যেতে পারেন দেশের সেরা ১০টি পলিটেকনিকের সেরা ৫ ডিপার্টমেন্টের একটিতে ।

Sharing Is Caring:

Leave a Comment

Back
WhatsApp
Telegram
Skype
Messenger
Viber
Email