জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড ও যাচাই করার নিয়ম ২০২২ আপডেট

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

আপনি কি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড ও জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই করার নিয়ম জানতে চান? তাহলে আজকের এই টিউটোরিয়াল টি আপনার জন্য৷ বাংলাদেশ জন্ম ও মৃত্যু অধিদপ্তর কতৃক সত্যায়িত সাটিফিকেট কিভাবে খুব সহজে ডাউনলোড ও যাচাই করতে পারেন তা নিয়ে মূলত আজকের এই টিউটোরিয়াল।

বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী প্রতিটি নাগরিকের জন্ম গত পরিচয় নির্ধারন করার জন্য প্রয়োজন জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট। যা একজন নাগরিকের জন্ম গত পরিচয় বহন করে। সুতরাং এই সাটিফিকেটটি ব্যাক্তি জিবনে গুবই গুরুত্বপূর্ণ।[ez-toc]

জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট কি?জন্ম নিবন্ধন

জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট একটি সনদ। যা বাংলাদেশ জন্ম ও মৃত্যু অধিদপ্তর কতৃক নিবন্ধিত একটি দলিল। এই সাটিফিকেট টি প্রাথমিকভাবে জন্ম গত পরিচয় বহন করে। একজন শিশু জন্ম গ্রহন করলে তাকে রাষ্ট্রিয় ভাবে একটি মেডিকেল সনদ প্রদান করা হয়। যাতে শিশুর সকল পরিচয় তুলে ধরা হয়। এরপর এই সনদ টি দিয়ে স্থানীয় পৌরসভা, ইউনিয়ন ও সিটি করপোরেশন থেকে সত্যায়িত সাটিফিকেট প্রদান করা হয়।

জন্ম নিবন্ধন কেন প্রয়োজন?

বর্তমানে প্রতিটি নাগরিকের জন্য জন্ম নিবন্ধন খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি সার্টিফিকেট। কেননা বর্তমান সময়ে সনদ ছাড়া আপনি কোন কাজ করতে পারবেন না। বাংলাদেশের একজন নাগরিকের জন্য প্রাথমিকভাবে যে সনদ প্রয়োজন সেটি হচ্ছে জন্ম নিবন্ধন। এরপর এই সার্টিফিকেট দিয়ে আপনি বাংলাদেশ জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন করতে পারবেন। বর্তমানে বাংলাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে হলে এই সার্টিফিকেট খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়াও নানান ধরনের কাজে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কি কি কাজে জন্ম নিবন্ধন প্রয়োজন?

বর্তমান সময়ে জন্ম নিবন্ধন হলো প্রাথমিক সনদ৷ বাংলাদেশে যে কোন কাজে এটি প্রয়োজন হতে পারে। তবে বিশেষ করে নিচের এসব কাজে খুবই প্রয়োজন।

  • জাতীয় পরিচয় পত্র আবেদন করতে প্রয়োজন
  • পাসপোর্ট আবেদন করতে প্রয়োজন
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভর্তি হতে প্রয়োজন
  • চাকুরির জন্য প্রয়োজন
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর জন্য প্রয়োজন
  • বিদেশে ভ্রমণ এর জন্য প্রয়োজন

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন 2022 করার নিয়ম -৩দিনে হাতে পাবেন

কিভাবে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করবেন ?

জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট এর জন্য আপনাকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। ইতিপূর্বে এটি অনলাইনে আবেদন প্রয়োজন ছিল না। তবে বর্তমান সময়ে কেবলমাত্র অনলাইনে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন৷ এই আবেদন করার পূর্বে আপনার কিছু ডকুমেন্ট প্রয়োজন হবে। এর মধ্যে কিছু ডকুমেন্টস এর তালিকা নিচে দেয়া হলো :

  • শিশুর টির্কা সনদ অথবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কতৃক প্রত্যায়ন।
  • শিশুর পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র
  • শিশুর পিতা ও মাতার জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট
  • জাতীয় পরিচয় পত্র ( যদি থাকে)
  • হোল্ডিং ট্যাক্স ডকুমেন্টস

উপরের এই কয়টি ডকুমেন্ট হলে আপনি অনলাইনে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন।এবং জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।
মোবাইলে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন ২০২২ করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম?

পূর্বের যে সকল জন্ম নিবন্ধন সনদ রয়েছে সেগুলো এনালগ। সেগুলো অনলাইনে সার্চ করলে পাওয়া যাবে না। এক্ষেত্রে আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার যদি 12 ডিজিটের হয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে এটি হচ্ছে এনালগ প্রকৃতির। আর উক্ত নাম্বার যদি 17 ডিজিটের হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে এটি হচ্ছে ডিজিটাল প্রকৃতির বা অনলাইন। তো যাদের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার 12 ডিজিটের রয়েছে তারা কীভাবে এটি অনলাইন করবেন? এটি কেবল মাত্র সরকার নির্ধারিত অধিদপ্তরে করতে পারবে। আপনার স্থানীয় জন্ম ও মৃত্যু অধিদপ্তরের যোগাযোগ করলেই তারা খুব সহজে এটি অনলাইন করে দিবে৷ সুতরাং -১৭ ডিজিট বানিয়ে দিবে৷পরে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই করার নিয়ম?

যদি আপনি ইতিমধ্যেই আপনার জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট এর জন্য অনলাইনে আবেদন করে থাকেন। সে ক্ষেত্রে আপনি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই করে দেখতে পারেন আপনার সার্টিফিকেটে কি অনলাইনে রয়েছে কিনা। এটি খুবই সিম্পল একটি বিষয় যা আপনি খুব সহজেই যাচাই করতে পারবেন।জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই করুন এখানে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার নিয়ম?জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

যদি আপনার সার্টিফিকেটে অনলাইনে থাকে তাহলে আপনি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন খুব সহজে। এর জন্য নিচের ধাপ গুলো ফলো করুন।

ধাপ #১ :
প্রথমে এই লিংক থেকে জন্ম নিবন্ধন অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ যেতে হবে।https://everify.bdris.gov.bd/

ধাপ #২ :
এরপর এখানে দুইটি খালি বক্স পাবেন। প্রথম বক্সে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার এবং দ্বিতীয় বক্সে জন্ম তারিখ দিন৷ এবং নিচের ক্যাপচা টি পূরণ করে সার্চ ক্লিক করুন।জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই

ধাপ #৩ :
এরপর উক্ত সনদটির সার্ভার কপি সো করবে। এখানে আপনার সকল তথ্য দেখতে পারবেন।

ধাপ #৪:
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার করার জন্য আপনাকে ডান পাশে কোনায় “থ্রি ডট ” আইকন ক্লিক করতে হবে। এবং এখানে প্রিন্ট একটি অপশন দেখতে পারবেন। ঐখানে ক্লিক করুন৷

ধাপ #৫ :
এরপর আবার প্রিন্ট এ ক্লিক করুন৷ যে জায়গায় পিডিএফ টি সেভ করবেন তা লোকেশন দিয়ে সেভ ক্লিক করুন।।

ধাপ #৬ :
এরপর দেখবেন উক্ত জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড হয়ে গেছে।

মূলত এটি হচ্ছে সার্ভার কপি। যা সত্যায়িত সাটিফিকেট নয়। সত্যায়িত জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট কেবল স্থানীয় পৌরসভা, ইউনিয়ন ও সিটি করপোরেশন থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ না পাওয়ার কারন কি?

জন্ম নিবন্ধন সনদ সার্চ করে না পাওয়ার কারন হলো -আপনার জন্ম নিবন্ধনটি অনলাইন করা নেই। সেক্ষেত্রে আপনাকে স্থানীয় জন্ম ও মৃত্যু অধিদপ্তরে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে। তারা আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইন করে দিবে।

জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে কি করবেন?

যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট হারিয়ে যায় – সেক্ষেত্রে আপনাকে নতুন করে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড সংগ্রহ করে নিতে হবে। আর এটি সংগ্রহ করার জন্য আপনার স্থানীয় জন্ম ও মৃত্যু অধিদপ্তর শাখার যেয়ে নিবন্ধনটি পূনরায় সংগ্রহ করতে হবে৷তাছারা নাম্বার দিয়ে জন্ম  নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন অনলাইনে।

জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট ভূল হলে কি করবেন?

জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট ভুল হলে আপনাকে অনলাইনে সংশোধনের জন্য আবেদন করতে হবে। সেক্ষেত্রে যা ভুল হয়েছে তা সংশোধন এর জন্য একটি প্রমাণ সরূপ ডকুমেন্টস সাবমিট করতে হবে। অনলাইনে সংশোধন ফি – ১০০ টাকা।

শেষ কথা :
উপরে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই ও জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার নিয়ম দেখানো হয়েছে। এছারা জন্ম নিবন্ধন ভুল, ফি ও অন্যান্য প্রশ্ন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট জানাতে পারেন। ধন্যবাদ সবাইকে।

আরও দেখুন :

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান ২০২২ করার নিয়ম (নতুন আপডেট)

মোবাইলে টি২০ বিশ্বকাপ লাইভ দেখার উপায় -T20 World Cup Live TV

Ps cc 2019 For Android – Latest Version Download

টিন সার্টিফিকেট আবেদন ও ডাউনলোড tin Certificate Application 2022

অনলাইন থেকে আপনার আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন ১মিনিটে

Leave a Comment